শান্তিতে “শেখ হাসিনা” নামক (পুরস্কার/এওয়ার্ডের) নতুন নামকরণ করা হোক!!

শান্তিতে “শেখ হাসিনা” নামক (পুরস্কার/এওয়ার্ডের) নতুন নামকরণ করা হোক!!
সর্বশেষ আপডেটঃ ১০ সেপ্টেম্বর ২০১৭ -ময়মনসিংহ জেলা ছাত্রলীগ, সভাপতি- মোঃ রকিবুল ইসলাম রকিব- এর ফেসবুকে করা একটি পোস্ট থেকে-

এক মনে বলি ‘দেশরত্ন’কে শান্তিতে নোবেল দেওয়া হোক-!
পক্ষান্তরে আরেক মনে বলি এরূপ নোবেল(!) পাইয়া লাভ কি !

যে ‘শান্তি প্রতিষ্ঠার’ জন্য এই ‘নোবেল’ নামক খেতাবটি অর্জিত হয়
অথচ সেই ‘শান্তির নোবেল’ই (!) কিনা ‘অশান্তি প্রতিষ্ঠার’ প্রধান সাইনবোর্ড বা সার্টিফিকেট হিসেবে ব্যবহৃত হচ্ছে!

ছি……..!! ধিক্কার জানাই ঐসব তথাকথিত, মন গড়ানো শান্তির নামে নোবেল পুরস্কার প্রাপ্তদের কে !!

#তাই_বলি_কি
“শেখ হসিনা-পুরস্কার” নামকই একটা পুরস্কারের নতুন নামকরণ হোক!

যে পুরস্কার প্রাপ্তরা বিশ্বের নিপীড়িত, অসহায়, বঞ্চিত, অবহেলিত মানুষের স্বার্থ রক্ষার কাজ করবে!
যে পুরস্কারটিই হবে মানবিক শান্তি প্রতিষ্ঠার আর অধিকার বঞ্চিত মানুষের অধিকার রক্ষার এক রক্ষা কবজ!
এবং তাঁরাই এই পুরস্কারে ভূষিত হবে যারা নিপীড়িত মানুষের দুঃখ দূর্দিনে আপোষহীন ভূমিকা রাখে-রাখবে!

কেউ তো সাহস করেনি, কেউ তো রোহিঙ্গাদের মানবেতর জীবনের করুন আর্তনাদ অন্তরে উপলব্ধি করেনি! বরং আরও উসকিয়ে দিয়েছে!
বিশ্বের তথাকথিত ক্ষমতাধর রাষ্ট্রের পাশাপাশি চীন, পাকিস্তান, ভারত এমনকি সৌদিআরবও নীরব থাকলো!
কেউ তো রোহিঙ্গাদের আশ্রয় দিতে এগিয়ে আসলো না!

যিনি আসলেন, যিনি বিপন্ন রোহিঙ্গাদের সাহায্যে তাঁর উদার হস্ত প্রশস্ত করলেন তিনি আমাদের আপামর বাঙালির আস্থার ধন,সাম্যের প্রতীক বঙ্গবন্ধু কন্যা দেশরত্ন শেখ হাসিনা!

তিনিই “বঙ্গকন্যা শেখ হাসিনা”!

তিনিই করেন!তিনিই তো করবেন!
কারন তিনিই তো দক্ষিন এশিয়ার সামগ্রিক উন্নয়ন ও শান্তি প্রতিষ্ঠায় সর্বত্র কাজ করেন!

জয়তু-বঙ্গবন্ধু কন্যা দেশরত্ন শেখ হাসিনা
আপনি ছাড়া ‘অসহায়ত্ব’ ঘুচার উপায় দেখিনা!

জয় বাংলা
জয় বঙ্গবন্ধু